স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে আটক ২

শেয়ার করুন

পঞ্চগড় সদর উপজেলায় নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর দায়ে ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা পঞ্চগড় সদর থানায় মামলা দায়ের করলে, পুলিশ অভিযুক্ত ২ আসামীকে তাদের বাড়ি থেকে আটকের পর আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

আটক ওই দুই আসামী, পঞ্চগড় পৌরসভার কামাতপাড়া এলাকার হবিবর রহমানের ছেলে আহসান হাবিব (১৯) ও একই এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে নজরুল ইসলাম জনি (৩২)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, করোনাকালিন সময়ের আগে ও ৩ বছর আগেও স্কুল যাওয়া আসার পথে ওই ৯ম শ্রেণীর ছাত্রীকে হাবিব ও জনি ইভটিজিং করতো এবং অশালীন কথা বলতো, এবংকি রাস্তায় পরনের কাপড় ধরে টানা হেচড়া করতো। বিষয়টি তার বাবা-মা কে জানানো হলে তারা ক্ষমা চেয়ে তাদের ছেলেকে বাচিয়ে নেয়। গত ৩ মাস আগে হাবিব আমাদের বাড়িতে এসে খারাপ ভাষায় গালি গালাজ করে। এবং মেয়ের নামে মিথ্যা বদনাম ছড়িয়ে দেয়। সাথে তাকে টেনে হেচড়ে নিয়ে যেতে চেষ্টা করে। এসময় গ্রামের লোকজন ও তার বাবা-মা বাড়িতে এসে আসামীকে নিয়ে যায়। এ বিষয়ে মিথ্যা বদনাম দিয়ে পৌরসভায় বিচার দিলে আমি বাচারে যাই। কিন্তু বিচার সম্পন্ন না হওয়ায় সোমবার (২ নভেস্বর) আবারো বিচারের তারিখ দেয়া হয়। কিন্তু এর একদিন আগে রোববার (১ নভেম্বর) সন্ধায় বাড়ির সামনে দাড়িয়ে থাকা মেয়েকে আসামী জনি ও হাবিব তাকে যৌন কামনা চরিতার্থ করার জন্য জোর পূর্বক টানা হেচড়া করে। সাথে অশালীন কথা বলে। এর পর মেয়ে অপমান সইতে না পেরে রাতেই নিজ ঘরের দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় তাকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এবং রাতেই আসামী দুই জনের নাম উল্লেখ্য করে থানায় মামলা দায়ের করে।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু আক্কাছ আহম্মদ মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটক ওই দুই আসামীকে রোববার (১ নভেম্বর) দিনগত রাতে তাদের আটকের পর সোমবার (২ নভেম্বর) দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

যেভাবে নিউজ পাঠাবেননিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ [email protected] এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই পঞ্চগড় জেলার সম্পর্কিত হতে হবে।

এখানে আপনার মন্তব্য  জানান

এছাড়াও আরো দেখুন
Close
Back to top button