সাবেক ছিটমহল নেতার গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন

শেয়ার করুন

পঞ্চগড়ে ছিটমহল বিনিময় কমিটির (পঞ্চগড় ও নীলফামারী জেলা) সভাপতি মফিজার রহমান ও তার ভাই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোজাম্মেল হকের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে বিলুপ্ত ৭৮ নং গাড়াতি ছিটমহলের স্থায়ী বাসিন্দারা।

শনিবার দুপুরে সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের বিলুপ্ত ওই ছিটমহলের পূর্ব বাগান ঈদগাহ সংলগ্ন সড়কে এক মানববন্ধনে এ দাবি জানান তারা।

তাদের অভিযোগ, গত বৃহস্পতিবার বিকেল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আলিম মাদ্রাসা মাঠে স্থানীয় আফাজ উদ্দীনের ছেলে মমিনুল ইসলামকে পরিকল্পিতভাবে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা করে মফিজার ও মোজাম্মেলসহ মাদ্রাসার কিছু শিক্ষক।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় আফসার আলী, নুর মোহাম্মদ, সামিউল ইসলাম, জবেদ আলী প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আলিম মাদ্রাসার শিক্ষক নিয়োগে একটি অনিয়মের অভিযোগে তদন্তে আসেন রংপুর বিভাগীয় মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের উপ-পরিচালক আখতারুজ্জামান। ওই অভিযোগের স্বাক্ষী ছিলেন মমিনুল। তদন্ত শেষে উপ-পরিচালক আখতারুজ্জামান চলে গেলে মফিজারের নেতৃত্বে মোজাম্মেলসহ মাদ্রাসার ১০ থেকে ১২ জন শিক্ষক মমিনুলকে মাদ্রাসার একটি কক্ষে নিয়ে বেধরক মারধর করে। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ করছি। একই সাথে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি।’

ভুক্তভোগি মমিনুল বলেন, ‘ঘটনার পরদিনই সদর থানায় এজহার দায়ের করেছি। এখন ন্যায় বিচার প্রত্যাশা করছি।’

পঞ্চগড় সদর থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল কাইয়ুম জানান, দুই পক্ষই এজহার দায়ের করেছে। মিমাংসা না হলে মামলা রেকর্ড করা হবে।

যেভাবে নিউজ পাঠাবেননিউজ পাঠাতে ইচ্ছুক যে কেউ [email protected] এই ঠিকানায় নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে নিউজ পাঠাতে পারেন। আমরা যাচাই বাচাই শেষে আপনার নিউজ যথারীতি প্রকাশ করবো। উল্লেখ্য, নিউজগুলো অবশ্যই পঞ্চগড় জেলার সম্পর্কিত হতে হবে।

এখানে আপনার মন্তব্য  জানান

Back to top button